bangla music

bangla music

জাতীয়

একাত্তর টিভির সাংবাদিক শাকিলের বিরুদ্ধে ধ`র্ষণ মামলা

বেসরকারি চ্যানেল একাত্তর টেলিভিশনের হেড অব নিউজ শাকিল আহমেদের বিরুদ্ধে ধ`র্ষ`ণের অ`ভিযোগে মা`মলা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে এক নারী বাদী হয়ে গুলশান থানায় এ মা`মলা করেন।মা`মলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার মো. আসাদুজ্জামান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, মা`মলায় শাকিল আহমেদের বি`রুদ্ধে ধ`র্ষ`ণ এবং ভ্রূণ হ`ত্যার অ`ভিযোগ আনা হয়েছে।

মা`মলার বরাত দিয়ে গুলশান থানা–পুলিশ বলেছে, এক নারী চিকিৎসকের সঙ্গে শাকিল আহমেদের সম্পর্ক হয়। পরে ওই নারীকে বিয়ে করার আশ্বাস দেন তিনি। সম্পর্কের একপর্যায়ে ওই নারী অ`ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। পরে শাকিল কৌশলে ওই নারীর গ`র্ভপাত ঘটান। এরপর শাকিল তাঁকে আর বিয়ে করতে রাজি হননি।পুলিশ উপকমিশনার আসাদুজ্জামান বলেন, ‘শাকিল আহমেদকে গ্রে`প্তার করা যায়নি। ধ`র্ষ`ণের অ`ভিযোগ করা ওই নারীর ডা`ক্তারি পরীক্ষা করা হবে।’ এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে শাকিল আহমেদের মু`ঠোফোনে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১১টার দিকে যোগাযোগ করা হয়। তবে তিনি ফোন ধরেননি।

আরও পড়ুন= ডিজেলের দাম বাড়ার প্রতিবাদে শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল থেকে চট্টগ্রামে গণপরিবহন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন বাস-মালিকরা। আজ দুপুরে আগ্রাবাদ এলাকায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন বাস মালিক সমিতির কার্যালয়ে নগরীতে চলাচলকারী বিভিন্ন বাস সার্ভিস মালিক সমিতির এক যৌথ সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন বাস মালিক সমিতির সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল।

তিনি বলেন, গাড়ির ডকুমেন্ট হালনাগাদ, মবিল, চাকা, খুচরা যন্ত্রাংশের দাম বেড়ে গেছে। ফলে পরিবহন মালিকরা এমনিতেই বেকায়দায় আছেন। এ অবস্থায় বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি) কারও সঙ্গে আলোচনা না করেই রাতের আঁধারে তেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা করে বাড়িয়ে দিয়েছে। এতে পরিবহন মালিকদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। জ্বালানি তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করা না হলে শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বিপিসি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না করলে প্রয়োজনে অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।

তিনি আরও বলেন, ৮০ টাকা করে ডিজেল ও কেরোসিন কিনে গাড়ি চালানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। আমাদের তেল নেওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। আজকে অনেক গাড়ির মালিক রাস্তায় গাড়ি নামাননি। এত বাড়তি দামে তেল কিনে গণপরিবহন চালানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। গাড়ির ভাড়া বাড়ালে গাড়ি চালাবো।চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মালিক মহাসচিব গোলাম রসুল বাবুল বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধি কারণে গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয়ভাবে। তারই অংশ হিসেবে চট্টগ্রামেও কোনো ধরনের গাড়ি চলাচল করবে না ।