bangla music

bangla music

জাতীয়

বগুড়ায় যুবলীগ নেতাকে কুপিয়েছে যুবদল!

বগুড়া জেলা যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক (প্রস্তাবিত) জাকারিয়া আদিলের উপর স`ন্ত্রাসী হা`মলার ঘটনা ঘটেছে। হা`মলায় তার সাথে থাকা আরও কয়েকজন নেতাকর্মী গু`রুতর আ`হত হয়ে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) রাত ১১টার দিকে বগুড়া জেলা যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আদিল, শহীদুল ইসলাম, পান্না সরদারের উপর যুবদলের কতিপয় স`ন্ত্রাসীরা হ`ত্যার উদ্দেশ্যে ন্যাক্কারজনকভাবে হা`মলা করে। জেলা যুবলীগের সভাপতির দাবি, এই হা`মলা যুবদলের নেতাকর্মীরা চালিয়েছেন।

হ`ত্যার উদ্দেশ্যে এই ন্যাক্কারজনক ও বর্বরোচিত হা`মলার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেছেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহনসহ সাবেক ছাত্র ও যুবনেতারা।সেই সাথে বিবৃতিতে তিনি হামলাকারী সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সচেষ্ট ভূমিকা প্রত্যাশা করেছেন

বগুড়া জেলা যুবলীগের সভাপতি শুভাশিষ পোদ্দার লিটন বলেন, যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আদিলের উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। সেই সাথে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি। আদিল যুবলীগের তরুন ও উদীয়মান নেতা। তার ভালো কাজ সহ্য না করতে পেরে যুবদলের কিছু সন্ত্রাসী হামলা চালায় তার উপর। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

এদিকে বগুড়া সদর থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন, আদিলের রাজনৈতিক দুইজন ঘনিষ্ঠ কর্মী কাদের ও মানিক। তাঁদের সঙ্গে মালতিনগর এলাকার কয়েকজনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে ওই গ্রুপের ১৫ থেকে ১৬ জন সদস্য মিলে কাদের ও মানিকের বাড়িতে হামলা চালায়।

ঘটনাটি জানতে পেরে আদিল খান্দার বাজার থেকে তাঁর ওই দুই কর্মীর বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় খান্দার এলাকায় ১৫ থেকে ১৬ জন মিলে তাঁর ওপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত আক্রমণ করে। এতে আদিলের গলায় ও গালে গুরুতর জখম হয়।তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় এখনও কোন মামলা হয়নি। তবে কিছু নাম পেয়েছি তাদের দ্রুত আটক করতে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।