bangla music

bangla music

জাতীয়

তেলের দাম বাড়ালেও কেন বন্ধ গ্যাসচালিত বাস

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী জোর দিয়ে বলেন, ‘এখনও ঢাকা শহরের ৯৮ ভাগ গাড়ি গ্যাসে চলে। মালিকরা সরকারকে চাপে রেখে নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্যই এগুলো বন্ধ রেখেছে।এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মো. শওকাত আলী বাবুল বলেন, ‘ঢাকা শহরে এক সময় ৯৮ শতাংশ বাস

সিএনজি চালিত থাকলেও এখন তা কমে ১-২ শতাংশে নেমে এসেছে। বেশিরভাগ বাস এখন তেলে চলে।সেই ২ শতাংশ বাস কেন বন্ধ রাখা হয়েছে, এমন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘একজন মালিকের ১০ টা বাসের মধ্যে বেশিরভাগ ডিজেলচালিত। হয়তো একটা বা দুইটা গ্যাসচালিত বাস আছে। এখন তার ৮ গাড়িই বন্ধ রেখে সেই দুইটা গাড়ি নিশ্চয় চালাবেন না।’তবে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ

সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী জোর দিয়ে বলেন, ‘এখনও ঢাকা শহরের ৯৮ ভাগ গাড়ি গ্যাসে চলে। মালিকরা সরকারকে চাপে রেখে নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্যই এগুলো বন্ধ রেখেছে। এখন যদি গ্যসের দাম বাড়ানো হত, তাহলে তারা বলত আমাদের সব গাড়ি গ্যাসে চলে। আসলে তারা সংঘবদ্ধ এবং নিজেদের স্বার্থের ব্যপারে সচেতন।’তবে একজন বাস মালিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, গ্যাসচালিত গাড়ি বন্ধ রাখা হয়েছে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ও নেতাদের মন রক্ষার খাতিরে।

আরও পড়ুন=বিশ্বকাপে প্রত্যাশা প’ও পূরণ করতে পারেনি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যর্থতার কারণে এখন নড়েচড়ে বসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে আরও একটি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। আগামী বিশ্বকাপকে সামনে রেখে নতুন করে দল গঠন করতে চায় বিসিবি।তাইতো বিগত কয়েক মাস ধরে অফ ফর্মে থাকা ক্রিকেটরা বাদ পড়তে পারে স্থায়ীভাবে। দলের বাজে পারফরম্যান্সে নিয়ে বৈঠকে বসেছিল ক্রিকেট বোর্ডের কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ বড় কর্তা। সেখান থেকে এসেছে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।

যার একটি আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে নতুন করে দল গঠন করা। যার শুরু হবে এই মাসে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। জানা গেছে, খালেদ মাহমুদকে স্থায়ী টিম ডিরেক্টর পদও দেওয়া হচ্ছে। কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে ছাঁটাই করছে না বোর্ড। তবে তার কাজ পর্যবেক্ষণে আনতে যাচ্ছে।

এজন্য খালেদ মাহমুদকে টিম ডিরেক্টর করা হচ্ছে। দলের সামগ্রিক সব কিছুতে তার হস্তক্ষেপ থাকবে। অনুশীলন, ম্যাচ পরিকল্পনা, দল নির্বাচন ও লক্ষ্য ঠিক করার কাজগুলো তাকে নিয়েই করতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টকে।

শুধু তাই নয় খালেদ মাহমুদ সুজনের অধীনে কাজ করার জন্য সাত ক্রিকেটারকে ডাক দিয়েছে বিসিবি। তারা হলেন- নাজমুল হোসেন শান্ত, পারভেজ হোসেন ইমন, ইয়াসির আলী রাব্বি, সাইফ হাসান, তৌহিদ হৃদয়, কামরুল ইসলাম রাব্বি ও তানবীর ইসলাম। রোববার থেকে তাদের প্রস্তুতি শুরু হতে পারে মিরপুর শের-ই-বাংলায়। বিশ্বকাপের পরপরই তিন টি-টোয়েন্টি ও দুই টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসবে পাকিস্তান। দ্বিপাক্ষিক সিরিজকে সামনে রেখে এই সাত তরুণকে বিবেচনায় নিয়েছে বোর্ড।