bangla music

bangla music

জাতীয়

নির্বাচনে জিততে পারেননি দুই ভাই ও মা-মেয়ের কেউই

পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী দুই ভাই জিততে পারেননি। এ ছাড়া তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী মা-মেয়েও পরাজিত হয়েছেন।তুলিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আপন দুই ভাই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

দুই ভাই পরাজিত হয়েছেন।এর মধ্যে বড় ভাই কামরুজ্জামান কামু আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন। তিনি মোটরসাইকেল প্রতীকে দুই হাজার ৮৬৬ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে, ছোট ভাই মো. শেখ কামাল আওয়ামী লীগের দলীয় নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন মাত্র ৩৩৪ ভোট এবং জামানত খুইয়েছেন।এখানে আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান তারেক হোসেন আবারও নির্বাচিত হয়েছেন।

তিনি চশমা প্রতীকে তিন হাজার ৩১৫ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।স্থানীয়রা জানান, ছোট ভাই শেখ কামাল প্রার্থী না হলে বড় ভাই কামরুজ্জামান কামু এবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতেন।অপরদিকে, তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মা ও মেয়ে।

তারা দুজনেও পরাজিত হয়েছেন।মা জীবন নাহার হেলিকপ্টার প্রতীকে ৯৭৭ এবং মেয়ে বুলবুলি আক্তার বক প্রতীকে ২৩৪ ভোট পেয়েছেন। এখানে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে মাইকে প্রতীকে এক হাজার ৬৩১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মোছা. রৌশনারা বেগম।স্থানীয়রা জানান, মা ও মেয়ের যেকোনও একজন প্রার্থী হলে নির্বাচিত হতে পারতেন। মা ও মেয়ে দুজনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় অনেক ভোটার অন্য প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন। এ সংরক্ষিত সদস্য মোট পাঁচ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।