bangla music

bangla music

জাতীয়

দুলাভাই এর ধ`র্ষণে শ্যালিকার মৃ`ত্যু

কিশোরগঞ্জে মেলায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে সাদিয়া আক্তার ওরফে রাস্না নামের এক কিশোরীকে (১৪) অপহরণ ও ধ`র্ষ`ণ করে হ`ত্যা মা`মলার রহস্য উ`দঘাটন করেছে পু`লিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।সেই সঙ্গে গ্রে`প্তার করা হয়েছে মা`মলার আসামি মো. হাছানকে (৪৮)। তিনি ওই কিশোরীর চাচাতো বোনের স্বামী।পিবিআই সূত্রে জানা যায়, নি`হত সাদিয়া ১৭ মার্চ বিকেলে লাউয়ের ডুগা আনার জন্য তার চাচাতো বোন জামাই আ`সামি হাছানের বাড়িতে যায়।

তখন আ`সামির স্ত্রী লাউয়ের ডুগা কেটে দেয়। এরপর সাদিয়া লাউয়ের ডুগা নিয়া বাড়ির দিকে রওনা হলে আ`সামি তার ঘরের সামনে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে। তখন সাদিয়া আক্তার আ`সামিকে একটু আগায় দিতে বলে। এ সময় আসামি হাছান সাদিয়াকে মেলায় যাওয়ার প্রস্তাব দেন। তখন সাদিয়া মেলায় যাওয়ার জন্য রাজি হলে আ`সামি রাত ১২টায় প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলেন।পিবিআই জানায়, তখন আ`সামি হাছান মাসকান্দা বাজারে চলে যায়। আসামি মাসকান্দা বাজার থেকে রাতে বাড়িতে যায়। তারপর বাড়িতে মুরগির ফার্মে কাজ করে।

ফার্মে আসার আগে যৌ`ন উ`ত্তেজক ট্যাবলেট খান আর একটি ট্যাবলেট সঙ্গে নেন। মুরগির ফার্মের কাজ শেষে রাত ১২টার দিকে আ`সামি সাদিয়ার বাড়িতে যান।পিবিআই আরও জানায়, আ`সামি টিনের ঘরে আঙুল দিয়ে শব্দ করলে সাদিয়া ঘর থেকে বের হয়। এরপর হাছান সা`দিয়াকে নিয়ে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে উত্তর দিকে মাটির রাস্তা দিয়ে পাকা রাস্তায় উঠে এসে ধান ক্ষেতের আইল দিয়ে মেলায় যাওয়ার কথা বলে সাদিয়াকে রসু মিয়ার কলাবাগানে নিয়ে যান।

তখন রাত অনুমানিক ১২টা ৩০ মিনিট। সেখানে আ`সামি হাছান সাদিয়ার শরীরে হাত দেয়। হাত দিতে বাধা দেওয়ায় সা`দিয়ার সঙ্গে ধ`স্তাধ`স্তি হয়। এরপর আ`সামি ওড়না দিয়ে ভু`ক্তভোগীর দুই হাত বাঁধে। তারপর তাকে ধ`র্ষ`ণ করেন। এসময় ভু`ক্তভোগী কিশোরী চিৎকার দেওয়ার চেষ্টা করে। তখন আ`সামি বাম হাত দিয়ে মুখ চেপে ধরেন।

এভাবেই দু’বার ধ`র্ষ`ণের পর আ`সামি দেখেন সাদিয়া আর নড়াচড়া করছে না। তখন তিনি মনে করেন সাদিয়া মা`রা গেছে। তখন আসামি হাতের বাঁধন খুলে দেয়। এরপর লা`শ কাঁধে নিয়ে কলাক্ষেতের পাশের সাহিনের পুকুর পাড়ে ফেলে গোসল করে বাড়িতে চলে যান।পিবিআইয়ের কিশোরগঞ্জের পু`লিশ সুপার শাহাদাত হোসেন জানান,

গ্রে`প্তার আ`সামি হাছান এর আগেও বলৎকার মা`মলায় নিম্ন আদালতে ১০ বছরের সাজা হয়েছে। সেই বলৎকারের মা`মলায় ২ বছর জেল হাজতে থেকে পরবর্তীতে মা`মলাটি আপিল করে জামিনে মুক্তি পেয়ে এই ঘটনা ঘটায়।তিনি আরও জানান, গ্রে`প্তারকৃত আ`সামি মোঃ হাছান (৪৮) আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বী`কারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। মা`মলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।